দিবস

১৫ আগস্ট এর বক্তব্য, ইতিহাস, জাতীয় শোক দিবস কেন পালন করা হয়

আগস্ট জাতীয় শোক দিবস। ১৫ আগস্ট বাংলার ইতিহাস এর ২২৬ তম দিন। এই দিনে কি কি হয়েছিল নিন। বাংলাদেশের ইতিহাসে সব থেকে স্মরণীয় একটি দিন। অত্যন্ত দুঃখের সাথে বাংলাদেশের মানুষ এই দিনটি পালন করে থাকে। ১৫ আগস্ট বাংলার ইতিহাসের একটি কাল অধ্যায় হয়ে আছে। ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট এই দিনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ছোট সন্তান থেকে শুরু করে তার সপরিবারের এবং আত্নীয় দের মধ্যে থেকে ১৭ জনকে হত্যা করা হয়ে থাকে।

সেই সময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও তার বোন শেখ রেহেনা দেশের বাইরে থাকায় প্রানে বেচেঁ জান। ১৯৭৫ সালে সৌদি আরব বাংলাদেশ কে একটি স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে থাকে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সকলের কথা মনে রেখে ১৫ এই আগস্ট এই দিনটি জাতীয় শোক দিবস হিসেবে পালন করা হয়ে থাকে।

১৫ আগস্ট এর বক্তব্য ও ইতিহাস

১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ তার পরিবার এর সকল কে ধানমন্ডি নিজ বাস ভবনের সামনে বুলেটের আগাতে খুন করা হয়। এবং আত্নীয় দের মধ্যে থেকে ও সেনাবাহিনীর সদস্য রা খুন করে থাকে মোট ১৭ জনকে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও তা সহধর্মিণী শেখ ফজিলাতুন্নেছা, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু এর পুত্র শেখ কামাল, শেখ জামাল, শেখ রাসেল, শেখ কামাল এর স্ত্রী সুলতানা কামাল, জামাল এর স্ত্রী রোজী জামাল,বঙ্গবন্ধুর ভাই শেখ নাসের, এমবি অফিসার সিদ্দিকুর রহমান, কর্নেল জামা, সেনা সদস্য সৈয়দ মাহবুবুল হক।

এই সময় ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে শেখ ফজলুল হক মনি এর বাসায় ও হামলার চালায় সেখানে শেখ ফজলুল হক মনি তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি কে হত্যা করেন। সেদিন বঙ্গবন্ধুর ভগ্নিপতির বাসায় ও হামলা চালানো হয় এবং তার কন্যার পুত্র সন্তানকে হত্যা করা হয়। এরকম আরও অনেকে এই অই দিন সেনাবাহিনীর বুলেটের আঘাতে প্রাণ হারায়। আমরা ১৫ আগস্ট এর এই দিনটি তে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সকল কে হারিয়েছি। তাই আমরা অত্যন্ত দুঃখের সাথে ১৫ ই আগস্ট এই দিনটি সুখ দিবস হিসেবে পালন করি।

জাতীয় শোক দিবস কেন পালন করা হয়

আমরা বাংলাদেশের প্রত্যেকটি মানুষই জেনে থাকি ১৫ আগস্ট শোক দিবস কেন পালন করা হয়ে থাকে। তারপর ও অনেকে গুগল এ সার্চ করে থাকেন ১৫ আগস্ট সম্পর্কে তাই আমরা আপনাদের জন্য আমাদের এই পেইজ এ ১৫ ই আগস্ট সম্পর্কে সকল তথ্য তুলে ধরেছি। ১৫ আগস্ট এর এই দিনে আমরা আমাদের জাতির পিতাকে হারিয়েছি।

তাই ১৫ আগস্ট অনেক জায়গায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কে স্মরণ করে এক সাগর ও রক্তের বিনিময়ে এই গান বাজানো হয় এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণ মাইকে বাজানো হয়ে থাকে। বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি ভবনে কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়ে থাকে। সকল শহীদদের কথা স্মরণ করে তাদেরকে শ্রদ্ধা নিবেদন ও ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।

পরিশেষে বলা যায়, প্রতিটা মানুষ এই এই শোক দিবস টি পালন করে থাকে। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট এই দিনটি কখনো ভুলে যাওয়ার মতো নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.